মায়া সভ্যতা

মায়া সভ্যতার মানচিত্র

১০০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দের দিকে মধ্য আমেরিকার নিম্নভূমির বনাঞ্চলে এক অদ্ভুত সভ্যতার বিকাশ ঘটেছিল। “মায়া” নামে এই সভ্যতা যে জনগোষ্ঠী নির্মাণ করেছিল, তারা অধিকাংশ প্রাথমিক সভ্যতা নির্মাণকারীদের মতো শহরে জীবন যাপন করতো না। বরং তাদের বসবাস ছিল ছোট ছোট কৃষি-গ্রামে। তারা পিরামিডের মতো দেখতে উপাসনাগৃহ ও উৎসবস্থল তৈরি করেছিল। এগুলো ছিল তাদের ধর্মীয় ও রাজনৈতিক জীবনের কেন্দ্রবিন্দু। মায়াদের ৪টি প্রধান কেন্দ্র ও অনেকগুলো ছোট ছোট কেন্দ্র ছিল। প্রধান কেন্দ্রগুলোর একেকটি থেকে দেশের প্রায় এক চতুর্থাংশ এলাকায় শাসনকার্য চালানো হতো।

মায়াদের তৈরিকৃত একটি উপাসনাগৃহ

মায়া সভ্যতায় চিত্র-লিখন পদ্ধতি ও নির্ভুল পঞ্জিকা ব্যবস্থা চালু ছিল। তাদের জ্যোতির্বিদরা সূর্যগ্রহনের দিন তারিখ সম্পর্কে ভবিষ্যৎ বাণী করতে পারতো। মায়া শিল্পীরা পাথর খোদাই শিল্পে ছিল অতুলনীয়।

মায়া সভ্যতার ক্যালেন্ডার

কিন্তু ৯০০ খ্রিস্টাব্দের দিকে মায়ারা তাদের সভ্যতার কেন্দ্রগুলো ছেড়ে চলে যায় এবং তাদের স্থিতিশীল জীবনব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়ে। ১৫ শতকে স্পেনীয়রা যখন ওই এলাকায় আসে তখন নিজেদের মধ্যে লড়াই করতে করতে নিঃশেষ প্রায় মায়া জনগোষ্ঠীর কাছ থেকে তাদের খুব বেশি প্রতিরোধের সম্মুখীন হতে হয়নি।

মায়া সভ্যতার একটি প্রাচীন নিদর্শন

অনেকের মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে, সেই মায়া সভ্যতার বর্তমান অবস্থান কোথায়? বর্তমানে মায়া সভ্যতার অবস্থান হচ্ছে- মেক্সিকোর দক্ষিণাঞ্চল, গুয়াতেমালা, বেলিজ, এল সালভেদরের উত্তরাঞ্চল এবং হন্ডুরাসের পশ্চিমাঞ্চলে।

প্রাচীন মায়া সভ্যতার বর্তমান মানচিত্র

Advertisements

About চাটিকিয়াং রুমান

সবসময় সাধারণ থাকতে ভালোবাসি। পছন্দ করি লেখালেখি করতে, আনন্দ পাই ডাক টিকেট সংগ্রহ করতে আর ফটোগ্রাফিতে, গান গাইতেও ভালবাসি। স্বপ্ন আছে বিশ্ব ভ্রমণ করার...।।

Posted on ফেব্রুয়ারি 16, 2012, in ইতিহাস and tagged , , , . Bookmark the permalink. 20 টি মন্তব্য.

  1. দারুন লিখেছ রুমান, অনেক কিছুই জানতে পারলাম। :)

  2. মায়া সভ্যতা শুধু শুনতাম আজ পড়ে জেনে নিলাম।
    ধন্যবাদ রুমান।
    আর ব্লগটি ভাল হয়েছে ।:)

  3. আরো বিস্তারিত হলে ভালো হত। মায়াদের নিজস্ব দিনপঞ্জিকা ছিল। সেই দিনপঞ্জিকার শেষ বর্ষ হচ্ছে ২০১২ সাল। মায়া সভ্যতার অধিবাসীরা কোথায় আছে?

    • হ্যাঁ আলামিন ভাই, মায়াদের পঞ্জিকার শেষ বর্ষ হচ্ছে ২০১২ সাল!

      মধ্য আমেরিকার মেক্সিকো, গুয়াতেমালা, বেলিজ, এল সালভেদর, হন্ডুরাস প্রভৃতি দেশ সমূহে এখনো সেই মায়া সভ্যতার কিছু অধিবাসী আছেন। আপনি ‘Apocalypto’ মুভিটা দেখতে পারেন, যেটা মায়া সভ্যতার উপর নির্মিত।

  4. রুমান ভাই মায়া সভ্যতার ইতিহাস যেনে আমার অনেক ভালো লেগেছে, আরও অনেক কিছু আপনার কাছ থেকে জানার প্রত্যাশা করছি। ধন্যবাদ,

  5. রুমান ভাই অনেক দিন হোল আপনার কোন নুতন ব্লগ পাচ্ছি না…!!! প্রত্যাশা করছি খুব দ্রুত নুতন কিছু ব্লগ আপনার কাছ থেকে আসবে… অপেক্ষায়ে রইলাম… রানা,

  6. জানলাম… যাক, অন্তত পশ্চিমাদের এই বিষয় নিয়ে ফালতু কচকচানি আজ থেকে বন্ধ হলো , সুন্দর পোস্ট হাসান :)

  7. জানার আগ্রহ ছিল। পোস্টটা পেয়ে খুব ভালো লেগেছে। মায়া সভ্যতা তাহলে প্রায় দুই হাজার বছর টিকে ছিল?

  8. সবুজ মোহাইমিনুল

    পড়া শুরু করতে না করতেই শেষ , আরেকটু বিস্তারিত হলে ভাল হত ।

    যাই হোক ভাল লেগেছে রুমান ভাই ।

  9. ধন্যবাদ হাসান। অনেক সু্ন্দর লিখেছো।

  10. মায়া সভ্যতার ওপর কি কোনো বই আছে??

    • মায়া সভ্যতা সম্পর্কে কোনো বই আছে কিনা তা আমার জানা নেই। তবে আপনি উইকিপিডিয়ায় অনেক তথ্য পাবেন এ ব্যাপারে। ‘Apocalypto’ মুভিটা দেখতে পারেন। মায়া সভ্যতার অনেক কিছু ব্যাপারে ধারণা পাবেন মুভিটা থেকে।

      ধন্যবাদ আপনাকে।

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: