নীল নদের দেশ

নীল নদের উপর নির্ভর করে গড়ে উঠেছিল প্রাচীন মিশরের সভ্যতা। প্রতি বছর নীল নদের বন্যায় পলি পড়ে উভয় কূলের মাটি উর্বর হতো, ফলে প্রচুর ফসল হতো। এ ছাড়া খালের সাহায্যে পানি নিয়ে নীল নদের দুই তীরে অঞ্চলগুলোতে চাষাবাদ করা হতো। এই আবাদি এলাকার পরিমাণ ছিল বর্তমান মিশরের জনবসতি এলাকার প্রায় সমান।

নীল নদ

খ্রিস্টপূর্ব ৩০০০ সালে মিশরে ছিল দুইটি বড় রাজ্য। উর্ধাঞ্চলীয় মিশর রাজ্য ছিল নীল নদের বদ্বীপ সীমা থেকে ৫০০ মাইল দক্ষিণে বর্তমানের আসোয়ান পর্যন্ত বিস্তৃত। অন্যদিকে নিম্নাঞ্চলীয় মিশর রাজ্য বিস্তৃত ছিল নীল নদের পুরো বদ্বীপ এলাকাজুড়ে। খ্রিস্টপূর্ব ৩১০০ সালে উর্ধাঞ্চলীয় মিশরের রাজা মেনেস নিম্নাঞ্চলীয় মিশর জয় করে দেশটিকে এক রাজ্যে পরিণত করেন।

নীল নদ

মিশরের শাসকরা পরিচিত ফারাও হিসেবে। মেনেসের পর থেকে খ্রিস্টপূর্ব ৩৩২ সালে আলেকজান্ডার মিশর জয় করার আগ পর্যন্ত ৩০টি বংশ মিশর শাসন করে। মিশরের ইতিহাসে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাল হচ্ছে- প্রাচীন রাজ্য (খ্রিস্টপূর্ব ২৮০০-২১৭৫): তৃতীয় থেকে ষষ্ঠ বংশ পর্যন্ত। মধ্যবর্তী রাজ্য (খ্রিস্টপূর্ব ২১৫৩-১৮০০): দ্বাদশ বংশ পর্যন্ত। নয়া রাজ্য (খ্রিস্টপূর্ব ১৫৭৩-১০৮৫): অষ্টাদশ থেকে বিংশ বংশ পর্যন্ত। পিরামিড ও স্ফিংকস তৈরি হয়েছিল প্রাচীন রাজ্যের আমলে। এ সময় মিশরীয়রা শিল্পকলায় সর্বোচ্চ শিখরে পৌঁছেছিল।

ছবি- গুগল থেকে নেয়া।

Advertisements

About চাটিকিয়াং রুমান

সবসময় সাধারণ থাকতে ভালোবাসি। পছন্দ করি লেখালেখি করতে, আনন্দ পাই ডাক টিকেট সংগ্রহ করতে আর ফটোগ্রাফিতে, গান গাইতেও ভালবাসি। স্বপ্ন আছে বিশ্ব ভ্রমণ করার...।।

Posted on এপ্রিল 29, 2012, in ইতিহাস and tagged , . Bookmark the permalink. 23 টি মন্তব্য.

  1. আমি ১৯৯৫ সালে মিশর ভ্রমণ করেছি। আপনার এই ব্লগ দেখে অনেক কথা চোখের সামনে ভেসে উঠছে…।

    মিশর না গেলে দুনিয়াতে অনেক কিছু মিস হয়ে যাবে…। হা হা হা…

  2. tumi to janoi ruman ami egypt pray beshir vag i dekhey eseychi..tmr post porey nostalgic hoye porlam..onek valolaglo.

  3. ruman tumi ki dekheycho last fri day r sahitto patay china r upor lekha amr ekta vromon post chapa hochchey…deikho :)

  4. oh paper er naam ta Amar Desh :P
    khali vuley jai sob ek sathey likhtey :(

  5. লিবিয়ায় যখন ছিলাম, মিশরে যাবার খুব ইচ্ছে ছিলো, কিন্তু যাওয়া হয় নি। কবে আবার যাবো!

  6. সুরঞ্জনা আপার ওয়ার্ড প্রেস ব্লগ দেখে আসুন…।।
    http://jamilahasanblog.wordpress.com/

  7. আ ম রা ই পা রি

    সহজ লেখায় আসাধারণ একটা বিষয় তুলে ধরেছেন। এজন্য ধন্যবাদ। আর আপনার সাথে ভ্রমণটা সারতে পারলে ভালই হত। যদি না পারি, তবে আপনার //মিশর ভ্রমণ কথা// শীর্ষক একটা লেখা পাবার অপেক্ষায় থাকলাম…

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: