শিরোনামহীন

গত ২৯শে মার্চ গিয়েছিলাম ফটিকছড়ির দাঁতমারা ইউনিয়নে বন্ধু মিজানের বাড়িতে। উদ্দেশ্য তার বিয়েতে উপস্থিত থাকা। সে দিন বিকেল ৪টায় আমি, বন্ধু ইকবাল এবং মিজানের এক কাজিন মিলে চট্টগ্রামের অক্সিজেন এলাকা থেকে রওনা হলাম মিজানের বাড়ির উদ্দেশ্যে। তার বাড়িতে যখন পৌঁছলাম ঘড়িতে সময় তখন সন্ধ্যা ৭টা বেজে ১০ মিনিট। সন্ধ্যা হয়ে যাওয়ায় ওদের এলাকায় আর ঘুরা হলোনা। পরেরদিন অর্থাৎ ৩০শে মার্চ দুপুরে মিজানের শুভ বিবাহের দিনক্ষণ, তাই আগের রাতেই ঠিক করে রাখলাম খুব সকালে উঠে আমরা ৩ জন (আমি, ইকবাল এবং মিজানের কাজিন) মিলে দাঁতমারা ইউনিয়নে ঘুরতে বের হবো। আমি আগে থেকে জানতাম তাদের বাড়ির পাশেই চা বাগান রয়েছে, যেটার নাম- নিউ দাঁতমারা টি এস্টেট। সুতরাং চা বাগানে ঘুরতে যেতে মন চাইছিল বেশি।

২৯ তারিখ রাতে মিজানের হলুদ অনুষ্ঠান ছিল। বন্ধুদের মধ্যে আমরা দু’জন উপস্থিত ছিলাম, যদিও পরের দিন বিয়ের অনুষ্ঠানে বন্ধু ফারুক উপস্থিত থেকেছিল। ঘরোয়া হলুদ অনুষ্ঠান শেষ হতে রাত প্রায় ৩টা বেজেছিল। এদিকে আবার খুব সকালে ঘুম থেকে উঠার পালা। যা হোক, পরেরদিন সকাল ৭ টার দিকে ঘুম ভাঙ্গলো। ঘুম থেকে উঠে সকালের নাস্তা সেরে ক্যামেরা নিয়ে বের হয়ে পড়লাম। একটু পর আমাদের সাথে যোগ দিল মিজানের কাজিন। সেদিনের ঘুরাঘুরির কিছু ছবি তুলেছিলাম আমার ডিজিটাল ক্যামেরায়। সেখান থেকে কিছু ছবি আপনাদের সাথে শেয়ার করছি।

বলুনতো এটা কী? ;)

এক পিচ্চির শার্টের বোতাম

এক শিশুর ক্রিকেটার হওয়া স্বপ্ন!

চলতে পথে-১

চলতে পথে-২

পথহারা পথিক?

চলতে পথে-৩

নির্বাক বৃক্ষ!

স্থানীয় স্কুল মাঠে ক্রিকেট খেলারত এলাকার কিশোর, যুবকরা

চা বাগানের প্রবেশ মুখে

চা বাগান-১

চা বাগান-২

চা বাগান-৩

চা পাতা

এরা ২ ভাই, মিজানের ভাগ্নে; আমাদের সাথে বের হয়েছিল ঘুরতে

আজ ৮ জুলাই, মিজানের সহধর্মিনী সায়মা’র জন্মদিন। সায়মাকে জানাই জন্মদিনের শুভেচ্ছা। আর তাদের দাম্পত্য জীবনের জন্য রইলো আমার অনেক শুভ কামনা। চিরসুখী হও তোমরা।

Advertisements

About চাটিকিয়াং রুমান

সবসময় সাধারণ থাকতে ভালোবাসি। পছন্দ করি লেখালেখি করতে, আনন্দ পাই ডাক টিকেট সংগ্রহ করতে আর ফটোগ্রাফিতে, গান গাইতেও ভালবাসি। স্বপ্ন আছে বিশ্ব ভ্রমণ করার...।।

Posted on জুলাই 8, 2012, in ফটোগ্রাফি and tagged , , . Bookmark the permalink. 45 টি মন্তব্য.

  1. ১ নং ছবিটা বুঝতে পারছি, দোয়াল কেটে পানির নলের ব্যবস্থা!

  2. ক্যাপশান গুলা সুন্দর হৈসে । :P :P

  3. ভাই রুমান, এত সুন্দর একটা ব্লগ আপনার! ব্লগ দেখে আমি রীতিমত মুগ্ধ! আপনার লেখার হাত আর ক্যামেরার হাত, উভয়ই প্রশংসনীয়।
    অনেক শুভ কামনা।

  4. রুমান ভাইয়া আপনার ব্রগের নামটা সার্থক। আপনার লেখা, ছবি তোলা, সৌজন্যবোধ (আরো না জানা গুণাবলী) একই “সমতল” এ চলে। হয়তোবা আপনার নামকরণের উদ্দেশ্য অন্য কিছু ছিল।
    ছবিগুলো মন ছুঁয়েছে। আর সবথেকে মজা লেগেছে ঐ দুইটা স্থানের নাম – দাঁতমারা, অক্সিজেন এলাকা ।

    • হাহাহা…আমি জানিনা আমার লেখা, ছবি তোলা এবং অন্যকিছু কোন মানের। পাঠকরাই মূলত এই ব্যাপারগুলো ভালো বলতে পারবেন।

      আমি দুইটি বিষয়ের উপর (ইতিহাস এবং ভ্রমণ) লিখতে ভালোবাসলেও মূলত সব ধরনের বিষয়ের উপর সমানভাবে লিখতে চাই। তাই এ ব্যাপারটিকে সামনে রেখে ব্লগের নাম নির্ধারণ করি- “সমতল”।

      আর দাঁতমারা এবং অক্সিজেন নামক জায়গা দুটির নাম আসলেই মজার। বিশেষ করে দাঁতমারা জায়গাটির নাম আমি যখন প্রথম শুনেছিলাম তখন খুব মজা পেয়েছিলাম।

      আপনাকে অনেক ধন্যবাদ শামীম ভাই। ভালো থাকুন সব সময়, নিরন্তন শুভ কামনা রইলো।।

  5. ছবিগুলূ অনেক সুন্দর হইসে ………।

  6. চমৎকার ! আশাকরি আমাকে সবসময় পাবেন।
    এগিয়ে যান,

  7. অতীব সুন্দর… চালিয়ে যান…

  8. চমৎকার পোস্ট!
    ছবিগুলো চমৎকার তুলেছেন রুমান ভাই। বেশ আগে এই চা বাগানে গিয়েছিলাম আমার কাজিনকে নিয়ে, যে কিনা নিজেও ফটিকছড়ির স্থানীয় বাসিন্দা।

    ভবিষ্যতে আরও এমন চমৎকার পোস্ট পাবো, এই অপেক্ষায়……

    • অনেক দিন পর আপনাকে ওয়ার্ডপ্রেসে দেখলাম দাইফ ভাই! ভালো লাগছে জেনে যে এই চা বাগানে আপনিও একবার গিয়েছিলেন।

      আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। আর অবশ্যই চেষ্টা করবো এই ধরনের পোস্ট দেয়ার জন্য। ভালো থাকুন সব সময়।।

      • বেশ ব্যস্ততায় যাচ্ছে দিনকাল রুমান ভাই। তবু আপনাদের লেখাগুলো মিস হলে বেশ খারাপ লাগে।

        চা বাগান আমার খুব প্রিয় একটি জায়গা। সময় পেলেই শ্রীমঙ্গলে ছুটে যাই। তাহলে বুঝতেই পারছেন। ধন্যবাদ আপনাকেও, এত সুন্দর সব পোস্ট আমাদের মাঝে ছড়িয়ে দেবার জন্য।

        • আমিও ইদানীং ব্যস্ততার মাঝে আছি ভাই। ওয়ার্ডপ্রেসে প্রিয় ব্লগারদের না দেখলে খারাপ লাগে। আরো ২/৩ জনকে অনেকদিন ধরে ওয়ার্ডপ্রেসে দেখছি না।

          চা বাগান আমারো প্রিয়। এ হিসেবে আপনার সাথে এই ব্যাপারটা মিলে গেছে। :)

          আপনাকে অনেক ধন্যবাদ দাইফ ভাই। শুভ কামনা আপনার জন্য।।

  9. পোস্ট সম্পর্কিত নয় বলে মাফ করবেন-(রুমান ভাই, ব্লগে ক্যাটাগরির বা লিংক এর জন্য ড্রপ-ডাউন মেনু কিভাবে তৈরি করা যায় একটু জানাবেন কি?? খুব খুব খুব উপকার হবে যদি কষ্ট করে জানান)

    • ব্লগে ক্যাটাগরি বা লিঙ্কের ড্রপ-ডাউন মেনু এড করতে হয় একই নিয়মে। ড্রপ-ডাউন মেনু এড করার জন্য প্রথমেঃ ড্যাশবোর্ড> অ্যাপিয়ারেন্স> Menus’এ যান।

      ১/ সেখান থেকে Menu Name’এ আপনার ব্লগের হোম পেইজের জন্য একটা নাম সিলেক্ট করে টাইপ করুন, যেমন- “প্রথম পাতা”। তারপর Creat Menu’তে ক্লিক বা এন্টার দিন। তারপর Automatically add new top-level pages’এর ঘরে ঠিক চিহ্ন দিয়ে Save Menu’তে ক্লিক করুন।

      এরপর বাম পাশের Theme Locations বাক্সের Primary Menu’র ঘরে “প্রথম পাতা” বা হোম পেইজের নাম হিসেবে যে নামটি টাইপ করেছিলেন সেটি সিলেক্ট করে “সংরক্ষণ” বাটনে ক্লিক করুন। তারপর Custom Links বাক্সের “ইউআরআই” ঘরে আপনার ব্লগ এড্রেস (http://vorerblog.wordpress.com) টাইপ করুন। এরপর Label’এর ঘরে আপনার হোম পেইজের নামটি (প্রথম পাতা) টাইপ করে Add to Menu’তে ক্লিক করুন। অতঃপর Save Menu’তে ক্লিক করুন।

      ২/ এবার আসা যাক কিভাবে ক্যাটাগরির জন্য ড্রপ ডাউন মেনু এড করবেন? এ জন্য আপনাকে আগের মতো ড্যাশবোর্ড> অ্যাপিয়ারেন্স> Menus’তে যেতে হবে। সেখানে থেকে Custom Links বাক্সের “ইউআরআই” ঘরে আপনার ব্লগ এড্রেস টাইপ করার পর “/” চিহ্ন দিয়ে “ক্যাটাগরি” বা ক্যাটাগরি মেনুর জন্য যে নামটি সিলেক্ট করেছেন সেটা টাইপ করুন (যেমন- আমি দিয়েছি “বিষয়ভিত্তিক সূচী”)। তারপর Label’এর ঘরে পুনরায় “ক্যাটাগরি” টাইপ করে Add to Menu’তে ক্লিক করুন।

      এরপর আপনার ক্যাটাগরিগুলো ড্রপ-ডাউন মেনু হিসেবে এড করার জন্য প্রথমে Categories বাক্স থেকে View All’এ ক্লিক করুন। তারপর আপনার ক্যাটাগরিগুলো সিলেক্ট করে Add to Menu’তে ক্লিক করুন।

      এখন ড্রপ-ডাউন মেনু হিসেবে ক্যাটাগরিগুলো শো করার জন্য আপনাকে যেটা করতে হবে সেটা হলো- Add to Menu’তে ক্লিক করার পর ক্যাটাগরিগুলো যখন “ক্যাটাগরি” মেনুর নিচে এড হয়ে যাবে তখন মাউসের রাইট বাটন একটা একটা ক্যাটাগরির উপর চেপে ধরে হালকা ডান পাশের দিকে টেনে দিবেন। তারপর Save Menu’তে ক্লিক করলেই আপনার ক্যাটাগরিগুলো ড্রপ-ডাউন মেনু হিসেবে শো করবে।

      হ্যাপী ব্লগিং।। :)

      • এম এস কে বাঁধন

        অসংখ্য অসংখ্য অসংখ্য …ধন্যবাদ রুমান ভাইয়া। আপনি সাহায্য না করলে আমি পারতামই না। আমি সারাজীবন আপনার কাছে কৃতজ্ঞ থাকব। আশা করি সারা জীবন সাথে পাব। আল্লাহ আপনার মংগল করুন।

  10. প্রতিটা ছবি খুব ভালো লাগলো

  11. একখানা ছবি হাজার কথার চাইতে বেশি কথা বলতে পারে । আপনার ফটোগ্রাফি দেখে আর একবার উপলব্ধি করতে বাধ্য হলাম ।

  12. আপনার লেখা আমার ভালো লেগেছে। প্রাঞ্জল এবং প্রাণ সঞ্চারি।

  13. ভাইয়া, আপনার ফটোগ্রাফীর হাত অনেক ভালো… আপনার জন্য অনেক অনেক শুভকামনা…. :)

  14. kuvvvvvvvvvvveeeeeeeeeeeeiiiiiiiiiiiiiii sundor……………….!!

  15. 1 no. pic ta ki rubber collection er jonno kina?@ruman bhi

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: